হোম গদ্য কানাডার গভর্নর জেনারেল সাহিত্য পুরস্কার

কানাডার গভর্নর জেনারেল সাহিত্য পুরস্কার

কানাডার গভর্নর জেনারেল সাহিত্য পুরস্কার
1.64K
0

অক্টোবর মাস এলে সারা কানাডা জুড়ে সাহিত্যমোদীদের মধ্যে বিপুল উদ্দীপনা লক্ষ করা যায়। উদ্দীপনার প্রধান কারণ হলো দেশ জুড়ে জাতীয় বা প্রাদেশিক সরকার বা বিভিন্ন সংস্থা কর্তৃক সাহিত্য ক্ষেত্রে যে পুরস্কারগুলো প্রদান করা হয় সেগুলোর অধিকাংশই এই সময়ে ঘোষণা করা হয়ে থাকে। একলক্ষ ডলারের গিলার পুরস্কার বা পঁচিশ হাজার ডলারের গভর্নর জেনারেল সাহিত্য পুরস্কারের মতো প্রথম সারির স্বীকৃতিগুলো আসে এই সময়ে। জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সেগুলো প্রদানের দৃশ্য প্রত্যক্ষ করবার জন্য মানুষের আগ্রহের কমতি থাকে না। চমকের দিক দিয়ে গিলার পুরস্কার এগিয়ে থাকলেও সাহিত্য ক্ষেত্রে কানাডায় গত ৮১ বছরে যে পুরস্কারটির জন্য সারা দেশের লেখকগোষ্ঠী অধীর আগ্রহে অপেক্ষায় থাকেন সেটি হলো গভর্নর জেনারেল সাহিত্য পুরস্কার।

সাহিত্যে বিশেষ মেধা প্রদর্শনের জন্যে বর্তমানে প্রতি বছর সাতটি ক্ষেত্রে গভর্নর জেনারেল পুরস্কার দেওয়া হয়ে থাকে। ইংরেজি ও ফরাসি দুটি ভাষার লেখকদের জন্যেই পুরস্কারের ব্যবস্থা রয়েছে। সাতটি ক্ষেত্র হলো অনুবাদ, কথাসাহিত্য, কবিতা, নাটক, প্রবন্ধসাহিত্য, শিশু-কিশোর সাহিত্য এবং ইলাস্ট্রেটেড বই, অর্থাৎ ইয়াং পিপল’স লিটারেচার।


শুরুতে গভর্নর জেনারেল সাহিত্য পুরস্কারের কোনো অর্থমূল্য ছিল না। লেখক সম্মানিত হতেন সেটাই ছিল প্রধান বিষয়। 


বর্তমানে প্রতিবছর সারাদেশের ১৪ জন লেখক এই পুরস্কার পেয়ে থাকেন। প্রতিজন লেখক আর্থিক মূল্যে ২৫ হাজার ডলার লাভ করেন। বলে রাখা যেতে পারে পুরস্কারপ্রাপ্ত গ্রন্থের প্রকাশকরাও পেয়ে থাকেন তিন হাজার ডলার করে। আর প্রতিটি ক্যাটাগরিতে ফাইনালিস্ট হিসেবে আরও যে চারটি করে বই থাকে সেগুলোর লেখকরা পান একহাজার করে।

1
বার্ট্রাম ব্রুকার [১৮৮৮- ১৯৫৫] প্রথম গভর্নর জেনারেল পুরস্কার বিজয়ী লেখক।

ইংরেজি ভাষায় রচিত সাহিত্যের জন্যে প্রদত্ত পুরস্কারের আশায় এবছর বই জমা পড়েছে মোট ৮৪১টি। বিশাল সে-ভিড়ে আছে ২১৪টি উপন্যাস, ১৪৪টি কাব্যগ্রন্থ, ১৭৪টি নন-ফিকশান ইত্যাদি। উপন্যাস ক্যাটাগরিতে যেমন রয়েছেন জর্জ বাওয়ারিং, শ্যারন বুটালা, ব্রুস মেয়ের, রবীন্দ্রনাথ মহারাজ, প্যাট্রিক লেনের মতো জ্যেষ্ঠ সাহিত্যিক, তেমনি কেরি সাকামাতো, হেলেন হামফ্রে, মিরিয়াম টাওয়েজের মতো ঔপন্যাসিকেরাও। বয়োজ্যেষ্ঠ কবি লরনা ক্রোজিয়ার ছাড়াও রোনা ব্লুমও রয়েছেন কবিতা পুরস্কারের দৌড়ে। আছেন জিম জনস্টোনের মতো মধ্যবয়সী, আবার রুপী কাউরের মতো তরুণ-বয়সীও। নন-ফিকশান ক্যাটাগোরিতে এবার উঠে এসেছে টরন্টো পুলিশের উচ্চপদস্থ ভূতপূর্ব বাঙালি কর্মকর্তা অলোক মুখার্জির বই। টরন্টোর পোয়েট লরিয়েট অ্যান মাইকেলসের অসাধারণ গ্রন্থ ইনফাইনাইট গ্রেডেশান-ও রয়েছে তালিকায়। আরও আছে বহুল আলোচিত তিন লেখক এলিজাবেথ হে, ডেভিড চ্যারিয়ান্ডি এবং ভিবেক শ্রেয়।

গতবছর ২০১৭ সালের ১ নভেম্বর গভর্নর জেনারেল পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছিল। ২৯ নভেম্বর সন্ধ্যায় অটোয়াতে রাষ্ট্রীয় ভবনে গভর্নর জেনারেল জুলি পায়েতে লেখক, অনুবাদক এবং ইলাস্ট্রেটরদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। সারাবছরে প্রকাশিত বইগুলোর মধ্যে যে ১৪৭৫টি বই পুরস্কারের জন্য জমা পড়েছিল তার মধ্যে ৭০টি বইকে নির্বাচন করা হয়। নির্বাচিত ৭০ থেকে ১৪টি গ্রন্থের লেখকের কাছাকাছি আসার জন্যে ব্যবস্থা করা হয় পাঠকদের সম্মিলনের। সবার জন্যে উন্মুক্ত এই ব্যবস্থায় লেখকেরা পাঠকদের সাথে মিলিত হন, অটোগ্রাফ দেন।

১৯৩৬ সালে কানাডার তৎকালীন গভর্নর জেনারেল লর্ড টুইডস মুইয়ের উদ্যোগে এই পুরস্কারটি প্রদানের ব্যবস্থা করা হয়। কানাডিয়ান অথরস অ্যাসোসিয়েশনের সাথে আলাপের মাধ্যমেই এই পুরস্কারটির চিন্তা স্পষ্ট হয়েছিল। সেসময় ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব ছিল ওই অ্যাসোসিয়েশনের। বলে রাখা যেতে পারে, শুরুতে পুরস্কার দেওয়া হতো শুধুমাত্র ইংরেজি ভাষার লেখকদের। কথাসাহিত্য এবং প্রবন্ধসাহিত্য দুটি ধারাতে পুরস্কার দেওয়া হতো। পরে বিভিন্ন সময়ে অন্যান্য ক্যাটাগরি সংযুক্ত হয়েছে। গভর্নর জেনারেল সাহিত্য পুরস্কারটি বর্তমানে পরিচালিত হয় কানাডার শিল্প-সাহিত্য-সংস্কৃতির প্রতিনিধিত্বশীল সরকারি প্রতিষ্ঠান কানাডা কাউন্সিলের মাধ্যমে। ১৯৫৯ সাল থেকে কানাডা কাউন্সিল এই দায়িত্ব পালন করে আসছে। ফরাসি ভাষার লেখকদের জন্যে আলাদা করে পুরস্কার দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়, কানাডা কাউন্সিল দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে।

42864375_106909886896770_1616003173359550464_n
গতবছর ইংরেজি ভাষায় যে সাতটি গ্রন্থ গভর্নর জেনারেল পুরস্কার লাভ করেছিল।

শুরুতে গভর্নর জেনারেল সাহিত্য পুরস্কারের কোনো অর্থমূল্য ছিল না। লেখক সম্মানিত হতেন সেটাই ছিল প্রধান বিষয়। অর্থমূল্য দেওয়ার বিষয়টিও যুক্ত হয় কানাডা কাউন্সিল দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে। ১৯৫৯ সালে সেটি শুরু হয় এক হাজার ডলার দিয়ে। তখন চারটি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার দেওয়া হতো। অর্থাৎ মোট আটজন লেখক সেবছর অর্থমূল্যে পুরস্কৃত হন। এরপরে ১৯৬৯ সাল থেকে অর্থমূল্যের পরিমাণ বাড়ানো হয় দুই হাজার পাঁচশ ডলারে। ১৯৭৫ সালে সেটি বেড়ে দাঁড়ায় পাঁচ হাজার ডলারে। ২০০০ সালে পনেরোতে উঠে যায় সেটি। আর ২০০৭ সাল থেকে ২৫ হাজার ডলার হিসেবে প্রতিজন লেখককে প্রদান করা হচ্ছে। ওই বছর থেকেই দুই ভাষায় মোট সাতটি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার প্রদান করা হচ্ছে।

গত বছরের পুরস্কার ঘোষণার সময় কানাডা কাউন্সিল ফর আর্টস জানায়, ‘Over their 81 years, the Governor General’s Literary Awards have celebrated more than 700 works by over 500 authors, poets, playwrights, translators and illustrators.’ গতবারের পুরস্কার ঘোষণার সময় কাউন্সিলের পরিচালক ও সিইও সাইমন ব্রল্ট বলেন, ‘আমাদের সংস্কৃতি আমাদের সাহিত্যের ওপর নির্ভরশীল। আর আমাদের সাহিত্য বিশ্ব জুড়ে আমাদেরকে গর্বিত করে।’


কানাডার সাহিত্যাঙ্গনের মানুষ এখন অধীর আগ্রহে অপেক্ষারত। আগামী ৩ অক্টোবর জানা যাবে শর্টলিস্টভুক্ত লেখকদের নাম।


পাঁচ শতাধিক লেখক গত ৮১ বছরে গভর্নর জেনারেল সাহিত্য পুরস্কার পেয়েছেন বা সংক্ষিপ্ত তালিকায় মনোনীত হয়েছেন। যিনি পুরস্কারটি পান, তিনি সন্দেহাতীতভাবে একজন উঁচুমাপের লেখক। যিনি সংক্ষিপ্ত তালিকায় স্থান পান, তিনিও যে একই উচ্চতার সেটা নিয়ে তর্কের কোনো অবকাশ নেই।

শুরু থেকে যদি ইংরেজিতে লেখা কথাসাহিত্যের দিকে তাকাই, দেখা যাবে ২০১৭ সাল পর্যন্ত পুরস্কার দেওয়া হয় নি ১৯৬৫ এবং ১৯৬৭ সালে। নন-ফিকশনে দেওয়া হয় নি ১৯৫৯, ১৯৬৯, ১৯৭০, ১৯৭২ সালে। নন-ফিকশন থেকে নাটক ও কবিতাকে আলাদা করে দেওয়া শুরু হয় ১৯৮০ সালে। এর পরের বছরগুলোতে দেওয়া হয়েছে, বিরতি ঘটে নি। ফরাসি থেকে ইংরেজি অনুবাদে পুরস্কার শুরু হয় ১৯৮৭ সালে।

3
২০১৭ সালে সাহিত্যে পুরস্কারপ্রাপ্তদের সাথে কানাডার গভর্নর জেনারেল জুলি পায়েতে।

উল্লেখ্য, ১৯৯০ সাল পর্যন্ত পুরস্কারটি দেওয়া হতো গ্রন্থ প্রকাশের পরের বছর। ১৯৯১ সাল থেকে বছরের পুরস্কার ওই বছরেই দেওয়া হচ্ছে।

সকল পুরস্কারের মতোই গভর্নর জেনারেল পুরস্কার নিয়েও বিতর্কের সূচনা হয়েছে মাঝে মাঝেই। অনেকেই মনে করেন পুরস্কারপ্রাপ্ত লেখকদের অধিকতর যোগ্য বইটির জন্য পুরস্কারটি না এসে অনেক সময় কমযোগ্য বই পুরস্কার পেয়েছে। উদাহরণ হিসেবে কানাডার অগ্রগণ্য সাহিত্য সমালোচক নর্থরোপ ফ্রাই রচিত দ্য গ্রেট কোর্ড ১৯৮৩ সালে পুরস্কৃত না হওয়াকে অনেকেই সহজভাবে মেনে নিতে পারেন নি। রাজনৈতিক কারণে গভর্নর জেনারেল পুরস্কার গ্রহণে অস্বীকৃতি প্রদর্শন করেছেন কোনো কোনো লেখক। ১৯৬৯ থেকে ১৯৭৭ সাল পর্যন্ত কুইবেকের মোট চারজন সরকারের সর্বোচ্চ পদ থেকে প্রদেয় এই পুরস্কারটি গ্রহণ করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। ১৯৬৮ সালে সিলেক্টেড পোয়েমস, ১৯৫৬-৬৮ গ্রন্থের জন্য লিওনার্দো কোহেনকে পুরস্কারটি দেওয়া হলে তিনি অস্বীকার করেন এই বলে যে, সারা কানাডায় তার লেখা বোঝার যোগ্য কোনো মানুষ নেই।

কানাডার সাহিত্যাঙ্গনের মানুষ এখন অধীর আগ্রহে অপেক্ষারত। আগামী ৩ অক্টোবর জানা যাবে শর্টলিস্টভুক্ত লেখকদের নাম। আর গভর্নর জেনারেল সাহিত্য পুরস্কার ঘোষিত হবে অক্টোবর মাসের ৩০ তারিখে।

সুব্রত কুমার দাস

উদ্যোক্তা at bangladeshinovels
জন্ম ৪ মার্চ ১৯৬৪; ফরিদপুর। ইংরেজিতে স্নাতকোত্তর। পেশায় লেখক।

প্রকাশিত বই :
১. শ্রীচৈতন্যদেব [ঐতিহ্য ২০১৮, ২০১৬ (টরন্টো)]
২. আমার মহাভারত (নতুন সংস্করণ) [মূর্ধন্য, ২০১৪]
৩. নজরুল-বীক্ষা [গদ্যপদ্য, ঢাকা, ২০১৩]
৪. অন্তর্বাহ [মূর্ধন্য, ঢাকা, ২০১৩]
৫. রবীন্দ্রনাথ: ইংরেজি শেখানো [মূর্ধন্য, ঢাকা, ২০১২]
৬. রবীন্দ্রনাথ ও মহাভারত [মূর্ধন্য, ঢাকা, ২০১২]
৭. আলোচনা-সমালোচনা [মূর্ধন্য, ঢাকা, ২০১২]
৮. রবীন্দ্রনাথ: কম-জানা, অজানা [গদ্যপদ্য, ঢাকা, ২০১১]
৯. প্রসঙ্গ শিক্ষা এবং সাহিত্য [সূচীপত্র, ঢাকা, ২০০৫]
১০. বাংলাদেশের কয়েকজন ঔপন্যাসিক [সূচীপত্র, ঢাকা, ২০০৫]
১১. নজরুল বিষয়ক দশটি প্রবন্ধ [সূচীপত্র, ঢাকা, ২০০৪]
১২. বাংলা কথাসাহিত্য: যাদুবাস্তবতা এবং অন্যান্য [ঐতিহ্য, ঢাকা, ২০০২]
১৩. নজরুলের ‘বাঁধনহারা’ [নজরুল ইন্সটিটিউট, ঢাকা, ২০০০]


সম্পাদনা—
১. সেকালের বাংলা সাময়িকপত্রে জাপান (সম্পাদনা) [নবযুগ, ঢাকা, ২০১২]
২. জাপান প্রবাস (সম্পাদনা) [দিব্যপ্রকাশ, ঢাকা, ২০১২]
৩. অগ্রন্থিত মোজাফফর হোসেন (সম্পাদনা) [গদ্যপদ্য, ঢাকা, ২০১১]
৪. কোড়কদী একটি গ্রাম (সম্পাদনা) [কলি প্রকাশনী, ঢাকা, ২০১১]

অনুবাদ—
১. Rabindranath Tagore: India-Japan Cooperation Perspectives [ইন্ডিয়া সেন্টার ফাউন্ডেশন, জাপান, ২০১১]
২. Parobaas (ইমদাদুল হক মিলনের উপন্যাস। অধ্যাপক মোজাফফর হোসেনের সাথে) [অনন্যা, ঢাকা, ২০০৯]
৩. Christian Religious Studies - Class V (এ এস এম এনায়েত করিমের সাথে) [এনসিটিবি, ঢাকা, ২০০৭]
৪. In the Eyes of Kazi Nazrul Islam: Kemal Pasha (অনুবাদ প্যানেলের সদস্য) [সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়,গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার, ২০০৬]
৫. Kazi Nazrul Islam: Speeches (অধ্যাপক মোজাফফর হোসেনের সাথে) [নজরুল ইন্সটিটিউট, ঢাকা, ২০০৫]
৬. Kazi Nazrul Islam: Selected Prose [নজরুল ইন্সটিটিউট, ঢাকা, ২০০৪]

এমাজন কিন্ডল এডিশনে বই :
১. Kazi Nazrul Islam: Selected Prose www.amazon.com/Kazi-Nazrul-Islam-Selected-Prose-ebook/dp/B00864ZCLY/
২. Rabindranath Tagore: less-known Facts http://www.amazon.com/Rabindrath-Tagore-Less-Known-Facts-ebook/dp/B008CC3YLA/
৩. Rabindranath Tagore: India-Japan Cooperation Perspective http://www.amazon.com/Rabindrath-Tagore-Less-Known-Facts-ebook/dp/B008CC3YLA/
৪. Worthy Reads from Bangladesh http://www.amazon.com/Rabindrath-Tagore-Less-Known-Facts-ebook/dp/B008CC3YLA/
৫. (Not) My Stories http://www.amazon.com/Not-Stories-Subrata-Kumar-Das-ebook/dp/B00880XDP8

ওয়েবসাইট : www.bdnovels.org
ই-মেইল : subratakdas@yahoo.com